1. admin@dailysunrisebangla.com : admin :
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৫ অপরাহ্ন

ধামরাইয়ে শ্বশুরকে হত্যার অভিযোগে পুত্রবধূ আটক

মোঃ আব্দুর রউফ,ধামরাই (ঢাকা)প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ১২৬ বার পঠিত

ঢাকার ধামরাইয়ে শ্বশুরকে (৭৫) হত্যা করার অভিযোগে পুত্রবধূবে আটক করেছে ধামরাই থানা পুলিশ। সেই সঙ্গে খুন হওয়া ওই গৃহকর্তার মরাদেহও উদ্ধার করা হয়েছে। ওই গৃহকর্তাকে  হত্যা  করা হয়েছে  বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেছে।  গৃহকর্তার নাম মোঃ লাবু মিয়া।

সে বাইশাকান্দা ইউনিয়নের গোলাকান্দা গ্রামের   মৃত মোঃ আব্দুল খালেক মিয়ার ছেলে। মরাদেহের ছুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়না তদন্তের জন্য মরাদেহটি রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দি হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এব্যাপারে ধামরাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৮ জুন) সকালে উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়নের গোলাকান্দা গ্রামে এ নৃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনাটি  ঘটে বলে জানা গেছে। সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, খুন হওয়া মোঃ লাবু মিয়ার ছেলে মোঃ জিয়াাউর রহমান ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে লাইনম্যান হিসাবে চাকুরিত আছেন। বিধায় বৃদ্ধ পিতাকে বাড়ীতে তার স্ত্রী সুমি আক্তারের কাছে রেখে যান তিনি। কিন্তুু তার বৃদ্ধা পিতাকে তার স্ত্রী মোটেও সহ্য করতে পারতনা। এ সুযোগে তার স্ত্রী মাঝেমধ্যেই তার পিতাকে (লাবু মিয়া) নানা ভাবে জুলুম অত্যাচার করে আসছিল।

শুধু তাই নয় বাসি পঁচা খাবার খাইতে দেয়া হতো ওই বৃদ্ধ গৃহকর্তাকে। সে ওইসব খাবার খেতে না পারায় তার ওপর পুত্রবধূ সুমি আক্তারের নির্যাতনের মাত্রা আরও বেড়ে যেত। নীরবে সহ্য করা ছাড়া তার আর কোন উপায় ছিলনা। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকালে ওই বৃদ্ধ শ্বশুরকে পুত্রবধূ সুমি আক্তার পূর্বের ন্যায় ওই বাসি পঁচা খাবার খেতে দেয়। সে এসব খাবার খেতে অনীহা প্রকাশ করলে ওই পুত্রবধূু ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে এলাপাতারি কিলঘুষি ও লাথি মারতে থাকে।

একপর্যায়ে দু’হাত দিয়ে গলায় চেপে ধরে হত্যা করে ওই বৃদ্ধা লাবু মিয়াকে। এরপর মরাদেহের ওপরে চাঁদর ঢেকে দিয়ে ওই গৃহবধূ বাড়ী ছেড়ে পালানোর সময় জনতার হাতে আটক হয়। পরে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আতিকুর রহমান আতিককে স্থানীয় জনতা অবহিত করলে তিনি ঘটনাস্থলে একজন অফিসারকে পাঠান সঙ্গীয় ফোর্সসহ ।

ধামরাই থানা পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আতিকুর রহমান স্যারের নির্দেশে সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে আসি। মরাদেহের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছোটবড় অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ও পারিপার্শ্বিক অবস্থা দেখে নৃশংস হত্যাকান্ডের সত্যতা পাই। প্রাথমিকভাবে এ হত্যাকান্ডের অনেক প্রমাণই মিলেছে। মরদেহের ছুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়না তদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দি হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এব্যাপারে ধামরাই থানায় একটি হত্যা মালা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২১ দৈনিক সানরাইজ বাংলা
Theme Customized BY Theme Park BD