1. admin@dailysunrisebangla.com : admin :
বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ১০:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ধামরাইয়ে সূতিপাড়া ইউপি নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ৯জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল আ’লীগ নেতাকে ঝাড়ু দিয়ে পেটালেন পৌর কাউন্সিলর মহিলা ইউপি সদস্য কতৃক সাংবাদিকদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ঠাকুরগাঁওয়ে নির্মানাধীন ভবন থেকে মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত ২৭ টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার চলতি ঈদে মোট চারটি সিনেমা রিলিজ হয়েছে স্ত্রীসহ দুই কন্যাকে জবাই করে হত্যা করলো ঋণের চাপে মানসিক বিকারগ্রস্থ স্বামী নিউরন নার্সিং ছাত্রছাত্রীদের বিদায় সংবর্ধনা ঠাকুরগাঁওয়ে জিংক ধানের কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত ধামরাই উপজেলার সূতিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন রেজাউল করিম রাজা ধানকোড়া গিরীশ ইনস্টিটিউশনের  এসএসসি- ৯৩ ব্যাচের বন্ধুদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত

ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে বিষ প্রাণে আত্মহত্যা।

,ধামরাই (ঢাকা)প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই, ২০২১
  • ২৩২ বার পঠিত

ঢাকার ধামরাইয়ে ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে বিষ প্রাণে শামেলা বেগম (৪০) নামে তিন সন্তানের জননী  আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। আজ বৃহস্পতিবার(১জুলাই) বিকালে শামেলা বেগমের নিজ বাড়ীতে আত্মহত্যা করেছে। শামেলা বেগমের স্বামী কালাচান মিয়া গত দুই বছর আগে মৃুত্যু বরণ করেছেন বলে জানা যায়। নিহত শামেলার ঘরে রহিমা ও রেশমা এবং রবিউল আওয়াল নামে তিন সন্তান রয়েছে। এমন ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সূয়াপুর ইউনিয়নের রৌহারটেক গ্রামে।

ইমাম আশরাফুলের বাড়ী সিরাজগঞ্জ জেলাই জানাগেছে। এলাকাবাসীর সুত্রে জানা যায়,নিহত শামেলা বেগম দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের মসজিদের ঈমাম মোঃ আশরাফুল ইসলামের সাথে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। গত দুই দিন পূর্বে আশরাফুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে তিনি শামেলা বেগমকে বিয়ে করতে পারবে না বলে জানান। এর আগেই রৌহারটেক গ্রামে লোকজন বিষয়টি জেনে ফেলে।পরে শামেলা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোহরাব এর কাছে বিচার দেন। কিন্তু চেয়ারম্যান তাকে বলে আপনি থানায় গিয়ে আইনের আশ্রয় নিতে বলেন। থানা পুলিশের কাছে গেলে টাকা পয়সা ও ইজ্জতের কথা চিন্তা করে থানা না গিয়ে বিষ প্রাণ করে নিজ বাড়ীতে মারা গেছে বলে জানান স্থানীয়রা ।

স্থানীয়রা লোকজন আরও বলেন,কয়েক দিন পূর্বে স্থানীয় মাতব্বর, মসজিদের সেক্রেটারী জাহিদ ও দলিল লেখক শরীফ হোসেন মসজিদের ইমাম আশরাফুল ইসলামের বিচার করে তাকে নিজেদের কাছে রেখে দেন। কিন্তু শামেলা বেগমের সঠিক বিচার পাইয়ে দেন নি অভিযোগ ছিল শামেলার। সেই কারণে শামেলা ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোহরাব এর কাছে বিচার চেয়ে ছিলেন। এর পর মৃত্যু ঘটনা জানার পর মসজিদের ইমাম মোঃ আশরাফুল ইসলাম পলাতক রয়েছে।

তবে স্থানীয় সাধারণ মানুষের অভিযোগ মাতাব্বরা যদি সঠিক বিচার করে দিত তাহলে এই  শামেলা বেগম  আত্মহত্যা  করতো না। মাতাব্বরাই ঈমাম আশরাফুলকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করেছে। এ বিষয়ে সূয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সোহরাব বলেন, শামেলা বেগম আমার কাছে বিষয়টি জানালে আমি তাকে থানা পুলিশের আশ্রয় নিতে বলি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি বলেন, মসজিদের ইমাম আশরাফুলের সাথে দীর্ঘদিন ধরে শামেলার পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে বিচার হয়েছে। কিন্তু মসজিদ কমিটির লোকজন ঈমামকে বাঁচিয়েছে। এর সঠিক বিচার করে নি।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এস আই) নুর মোহাম্মদ বলেন, ঘটনার স্থল পরিদর্শন করেছি। লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি।শামেলার মৃত্যুর কারণ যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। ঘটনা সত্য প্রমাণিত হলে। ইমাম আশরাফুলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২১ দৈনিক সানরাইজ বাংলা
Theme Customized BY Theme Park BD