1. admin@dailysunrisebangla.com : admin :
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০১:১৫ অপরাহ্ন

সুদের টাকা দিতে দেরি করায় ধর্ষণ মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা

মোঃ আব্দুর রউফ,ধামরাই (ঢাকা)প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ৭২ বার পঠিত

ঢাকার ধামরাইয়ে সুদের টাকা দিতে দেরি কারায় মোঃ ওমর আলী(২৩)নামে এক যুবককে নিজ বাড়ীতে ডেকে নিয়ে মিতু সরকার নামে এক হিন্দু মহিলা ঘরের বারান্দায় আটকিয়ে রেখে ধর্ষণ মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত শুক্রবার (২জুলাই) সকাল ১১ টার সময় ধামরাই উপজেলার নান্নার ইউনিয়নের নান্নার গ্রামের এমন ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানাগেছে। মোঃ ওমর আলী নান্নার ইউনিয়নের নান্নার গ্রামের মোঃ দুদু মিয়ার ছেলে। ওমর আলী নান্নার বাজারে কাচা মাল ও বয়লার মুরগীর ব্যবসা করে। সে সকাল বেলা তার নিজ জমিতে শাক তুলতে গেলে মিতু রানী সরকার ওমরকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে নিজ ঘরের বারান্দায় আটকিয়ে রাখে। এলাকাবাসি সুত্রে জানা যায়, মিতু রানী সরকার (৪৫) গত ১০ বছর আগে তার স্বামী বিল্পব সরকার ওরফে বিপদ সরকার মারা যায়। তাদের ঘরে দুটি সন্তান রেখে যান। একটি মেয়ে আর একটি ছেলে। ইতি মধ্যে মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। ছেলে পড়াশোনা করে। স্বামী বিপদ সরকার বেশ কিছ ক্যাশ টাকা রেখে যান। সেই টাকা মিতু রানী সরকার নান্নার এলাকায় বিভিন্ন জনের কাছে সুদে লাগিয়ে সেই টাকার আয়ে চলে তার সংসার।

এই দিকে ওমর আলী কাচা মালের ও বয়লার মুরগীর ব্যবসা করে। সেই কারণে ওমরের কিছু টাকার প্রয়োজন  হলে সেই মিতু রানী সরকারের কাছ থেকে ৬০হাজার টাকা সুদে আনে। এর পর চলতে থাকে সুদ। চলিত মাসের সুদের টাকার জন্য মিতু রানী সরকার ওমর আলীকে পর পর তিন দিন ফোন দিলে তার ফোন বন্ধ পায়। সেই কারণে গত শুক্রবার সকালে বেলা ওমর আলী তাদের ক্ষেতে শাক তুলতে গেলে কৌশলে মিতু রানী সরকার ওমরকে বাড়ীতে ডেকে নিয়ে বারান্দার ভিতরে নিয়ে আটক করে বলে আমার সুদের টাকাসহ আসল টাকা ফিরত দিতে হবে এখন। তখন ওমর আলী বলে সব টাকা আমি আপনাকে দিয়ে দেব, তবে আমাকে সময় দিতে হবে। আমি এখন আপনার সুদের টাকা দিয়ে দিব আমাকে যেতে দেন। কিন্তু নাছোর বান্দা মিতু রানী সরকার বলে সেটা চলবে না এখনি টাকা দিয়ে যেতে হবে তা না হলে আমাকে বিয়ে করতে হবে।এই সময় নান্নার গ্রামের মাতাব্বর আওলাদ হোসেন খবর পেয়ে মিতু রানী সরকারের বাড়ীতে যায়। সেখানে গিয়ে মাতাব্বর আওলাদ হোসেন বলে তোমরা ওমর আলীকে কেন আটক করেছ। তখন মিতু রানী সরকার বলে আমি ওমরের কাছে টাকা পায় টাকা দিতে বলেন। তখন আওলাদ মাতাব্বর টাকা দিবে বলে ওমরকে সেখান থেকে নিয়ে আসে। এই বিষয়ে মাতাব্বর আওলাদ হোসেন বলেন,আমি খবর শুনলাম যে ওমরকে মিতু সরকার আটক করেছে। সাথে সাথে আমি মিতু সরকারের বাড়ীতে গিয়ে দেখলাম বারান্দায় মহিলার শাশুরী ও তার ছেলে পাশে ওমর বসে আছে। তবে বারান্দার গেটে তালা দিয়ে রেখেছে। আমি মিতু রানী সরকারকে ডেকে তালা  খুলে ভিতরে গিয়ে ঘটনাটি  জানলাম। মিতু বললো ওমর আমার কাছ থেকে সুদে টাকা নিয়েছে।

সে টাকা না দিয়ে আজ তিন দিন সে আমার ফোন ধরেনা । ফোন বন্ধ করে রেখেছে। যার কারণে আজ আমি ওরমকে আটক করেছি। এছাড়া ওমরের সাথে আমার সর্ম্পক আছে। তাই টাকা না দিলে আমাকে বিয়ে করতে হবে। নইলে আমি আত্মহত্যা করবো। এই বিষয়ে মিতু রানী সরকার বলেন, ওমর আলী আমার আমার কাছ থেকে সুদে টাকা নিয়েছে এটা সত্য। এছাড়া ওমর আলীর সাথে আমার দীর্ঘ দিনের সর্ম্পক রয়েছে । তাই ওমর আলী যদি আমাকে বিয়ে না করে তাহলে তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দিব। নইলে আমি আত্মহত্যা করবো। এই বিষয়ে নান্নার দায়িত্বে থাকা পুলিশ অফিসার এস আই মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন,নান্নার থেকে মিতু রানী সরকার নামে এখ নপর্যন্ত কোন অভিযোগ পায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২১ দৈনিক সানরাইজ বাংলা
Theme Customized BY Theme Park BD