1. admin@dailysunrisebangla.com : admin :
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০২:৩৬ অপরাহ্ন

ধামরাইয়ে যুবদলের নেতা হলেন আ:লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১
  • ৩০২ বার পঠিত

ঢাকার ধামরাই উপজেলার বালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী-লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ বকুল মেম্বারকে নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা সমালোচনা ঝড়। তারা বলতেছে যুবদলের নেতা থেকে এক লাফে কি করে বালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী-লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদকের পদে প্রতিষ্ঠিত হলেন সেই আলোচনা চলছে নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের মাঝে। কি করে বকুল মেম্বার এক সাথে দুই দলে বহাল রয়েছে। যুবদলের রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয় বকুল মেম্বার কি করে আওয়ামী-লীগের মত এত বড় একটি সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদ দেওয়ায় উপজেলা কমিটির নেতাদের নিয়েও চলছে নানা সমালোচনা।

বকুল মেম্বারের সঙ্গে রাজনীতি করা অনেকেই বলছে বকুল মেম্বার শুরু থেকেই যুবদলের নেতাকর্মীদের সাথে থেকে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। হঠাৎ করে বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে থেকে বালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী-লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হয়ে সবায়কে তাজ্জব লাগিয়ে দিয়েছে। এছাড়া বালিয়া ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা আরও বলছেন ধামরাই উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি বালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আহম্মদের সাথে থেকেই এমন পদ পেয়েছে। বকুল উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের মাদারপুর গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও প্যানেল চেয়ারম্যান হিসাবে আছে।আবুল হাশেম বকুল মেম্বারকে বিএনপির যুবদলের বিভিন্ন কর্মসুচিতে দেখাগেছে প্রথম সারিতে। অভিযোগ রয়েছে যুবদলের কমিটিতে থাকার কথা গোপন করে বালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী-লীগের নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করে ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন। এই নিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী-লীগের নেতাকর্মীদের মাধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। এই বিষয়ে বালিয়া ইউনিয়ন আ: লীগের ত্রাণও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পদক আবুল হাশেম বকুল বলেন,বিএনপির যুবদলের কোষাধক্ষ্য হিসাবে কোন দিন ছিলাম না। আমি দীর্ঘ ১৩বছর বিদেশ (সৌদি)ছিলাম।২০১০ সালে দেশে এসে ইটভাটার ব্যবসা করিতেছি এবং বর্তমানে আমি বালিয়া ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বারের দায়িত্ব পালন করে আসিতেছি।এর আগে আমি কোন রাজনীতির সাথে ছিলাম না। এই বিষয়ে বালিয়া ইউনিয়নের যুবদলের সভাপতি বিল্পব বলেন,আবুল হাশেম বকুল যুবদলের কোষাধ্যক্ষ হিসাবে ছিল। উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হিমায়েত কবির মতিন বলেন,বিয়ষটি আমার জানা নেয়। তবে এমন যদি হয় এমপি সাহেবের সাথে আলাপ করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই বিষয়ে বালিয়া ইউনিয়ন আ্ওয়ামী-লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মজিবর রহমান বলেন, বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আহম্মদ হোসেন তার ব্যাক্তিস্বার্থের জন্য বিএনপিরও জামায়াত নেতাদের দলে ঢুকিয়েছে। কারণ বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান হিসাবে আছে বালিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মেম্বার মোঃ এমারত হোসেন,২নং প্যানেল চেয়ারম্যান হিসাবে আছে গোলাম মোস্তফা মেম্বার এবং ৩নং প্যানেল চেয়ারম্যান আছে মোঃ আলী হোসেন মেম্বার। কিন্তু চেয়ারম্যান নিজের স্বার্থের জন্য বিএনপির নেতা বকুলকে আওয়ামী-লীগে ঢুকিয়ে তাকে প্যানেল চেয়ারম্যান বানিয়েছেন। সুযোগ সন্ধ্যানী এই সব নেতার কারণে দলের ক্ষতি হচ্ছে। বালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী-লীগের সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ হোসেন বলেন, সম্মেলন হওয়ার সময় কে বা কারা বিএনপির নেতা। বকুলের নাম কমিটিতে  দিয়েছে তা আমি জানিনা।তবে কিছু কিছু নেতার সুবিধার কারণে বিএনপির নেতাদের দলে ঢুকিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২১ দৈনিক সানরাইজ বাংলা
Theme Customized BY Theme Park BD