1. admin@dailysunrisebangla.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:১৭ অপরাহ্ন

অনুমতি ছাড়া ফসলি জমির মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে একটি মহল

ধামরাই (ঢাকা)প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ২৫৪ বার পঠিত

ইট উৎপাদনে কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত হয় মাটি।মাটির ব্যাপক চাহিদা থাকায় মাটি ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া। প্রশাসনের হুশিয়ারী থাকা সত্যেও লাগামহীন ভাবে কৃষি জমির মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে এক শ্রেণির অসাধু মাটি ব্যবসায়ীরা।

ঢাকার ধামরাইয়ে সূতিপাড়া ইউনিয়নের বেলিশ্বর এলাকায় তিন ফসলী জমির মাটিকেটে পুকুর তৈরি করা হচ্ছে। এছাড়া আরও অভিযোগ রয়েছে ভিপি জায়গার মাটিও কেটে নিয়েছে ওই মহল। সরে জমিনে গিয়ে দেখাযায়, বেলিশ্বর এলাকার কতিপয় ভুমিদুস্য আব্দুস সালাম,জসিম উদ্দিন ও রতন কুমার চৌধুরী গং ক্ষমতার জুরে মাটি ক্রয় করে তিন ফসলী জমির মাটি কেঁটে ইটভাটায় বিক্রি করছে।এতে করে কৃষির ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয় কৃষকদের।

সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে মাটিলুটকারী সেলিম হোসেন বলেন,আপনেরা আসছেন বসেন চা খান বলে অনৈতিক সুবিধা দিতে চান।এতে সংবাদকর্মীরা অসম্মতি জানিয়ে প্রশ্ন করেন কিছুদিন আগে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে কয়েকটি খননযন্ত্র জব্দ ও কৃষি জমির মাটিলুট করার অপরাধে আর্থিক জরিমানা করা হয়? এরপরও আপনারা কিভাবে মাটি কাটার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন?

তখন সেলিম হোসেন বলেন, সবকিছু ম্যানেজ করেই কাজ করতেছি।কি ধরনের ম্যানেজ করেছেন? এমন প্রশ্ন করা হলে, তখন সেলিম কথা এরিয়ে গিয়ে তিনি বলেন,ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম সব ম্যানেজ করে দিয়েছেন।সেলিম আরো বলেন ওই জরিমানা হতো না, যদি সবাই কথা শুনতো ইউনিয়ন ভূমি অফিস সূত্রে জানতে পেরেছিলাম ওইদিন ম্যাজিস্ট্রেট আসবেন।আমরা সবাই খনন যন্ত্র সরিয়ে ফেলেছিলাম যারা সরায়নি তাদেরই জরিমানা হয়েছে।

রতন চৌধুরীর বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ধামরাই উপজেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম বলেন, ম্যানেজের ব্যাপারে ওরা যা বলেছে এটা সত্যি নয়।আমি মাটি কাটার বিষয়ে কিছু জানি না।তবে আপনারা বিষয়টা দেখেন। এই বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরিফুল হাসান বলেন,যেকোন ধরনের জমির শ্রেণি পরিবর্তনের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসকের অনুমতি প্রয়োজন। অন্যথায় মাটিকাটা ও ভরাট বেআইনি।

যদি কেউ ফসলি জমির  মাটি কেটে নেয়  তাহলে তাকে অনুমতি নিয়ে মাটি কাটতে হবে। এই বিষয়ে ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও)হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বলেন,তিন ফসলী জমির মাটি কেটে যারা ইটভাটায় বিক্রি করে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মাটিলুটকারীদের বিরুদ্ধে আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২১ দৈনিক সানরাইজ বাংলা
Theme Customized BY Theme Park BD