1. admin@dailysunrisebangla.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:০১ অপরাহ্ন

উপজেলা আওয়ামীলীগের দুই গ্রপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২২
  • ৫২ বার পঠিত

ঢাকার ধামরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন হার্ডিঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্থান নিধারণ করাকে কেন্দ্র করে বর্তমান এমপি বেনজীর আহমদ ও সাবেক এমপি এম এ মালেক সর্মথকের মধ্যে ধাক্কা-ধাক্কি এবং ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (২৬আগষ্ট) পৌর শহরের ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে সিটি সেন্টারের সম্মেলন প্রস্ততি সভায় এমন ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র আওয়ামীলীগের দুই গ্রপের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোন সময় ঘটে যেতে পারে রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষ। সুত্রে জানাগেছে,আগামী ১৩সেপ্টেম্বর ধামরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রী-বার্ষিক সম্মেলনের তারিখ নিধারন করেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা।সেই সম্মেলনের স্থানকে কেন্দ্র করে  শুক্রবার বিকালে পৌর শহরের ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে সিটি সেন্টারে মিটিংয়ের আয়োজন করেন ধামরাই উপজেলা আওয়ামী-লীগের সম্মেলন প্রস্তত কমিটি নেতারা।

আলোচনা সভায় স্থানীয় নেতারা বলেন, আগামী ১৫ই সেপ্টেম্বর থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে তাই সম্মেলনের স্থান হার্ডিঞ্জ স্কুলের মাঠের পরিবর্ততে যাত্রাবাড়ি মাঠে করার অনুরোধ করেন। স্থানীয় নেতাদের কথা গুরুত্ব এবং এসএসসি পরীক্ষা কথা চিন্তা করে সম্মেলনের স্থান যাত্রাবাড়ি মাঠে করার ঘোষনা দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা এমএ মালেক ও সাধারন সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সাখাওয়াত হোসেন সাখু।এসময় স্থানীয় সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমদ উত্তেজিত হয়ে বলেন,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মালেক ও সাধারন সম্পাদক সাখুকে বাদ দিয়ে তিনি হার্ডিঞ্চ স্কুলের মাঠে সম্মেলন করবেন বলে ঘোষনা দেন। এসময় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাদ্দেছ হোসেন সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদকে বলেন,তাহলে আমাদের কেন ডেকেছেন ? আপনি একাই সম্মেলন করেন। এনিয়ে তর্কবিতর্ক হলে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এসময় সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদ সমর্থকদের সাথে ও সাবেক সংসদ সদস্য এমএ মালেক এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাকুর সর্মথকদের মধ্যে ধাক্কা-ধাক্কি শুরু হয়। ধাক্কা ধাক্কির একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

উপজেলা আওয়ামীলীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য এ্যাডভোকেট তারেক রহমান বলেন, সম্মেলনের স্থান যাত্রাবাড়ির মাঠের পক্ষে র্তৃণমূল নেতাকর্মী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতারা। কিন্তু সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদ উপজেলা আওয়ামী-লীগের সভাপতি এমএ মালেক ও সাধারন সম্পাদক সাখুকে বাদ দিয়ে হার্ডিঞ্জ স্কুলের মাঠে সম্মেলন করবেন বলে প্রস্তুতি সভায় ঘোষনা দিলে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। এই সময় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নেতাকর্মীরা নেমে আসলে রাস্তার দুই দিকে শত শত গাড়ি জেমে পড়ে যায়। আগামী ১৫ই সেপ্টেম্বর থেকে এসএসসি পরীক্ষা হবে হার্ডিঞ্চ স্কুলে তাই সব নেতাকর্মীরা চাই যাত্রাবাড়ি মাঠে সম্মেলন হউক। এই বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোহাদ্দেছ হোসেন বলেন,এমপি বেনজীর আহমদ নেতাকর্মীদের মতামতের প্রাধান্য না দিয়ে নিজের মনমত সম্মেলনের স্থান ঠিক করতে চাই। তিনি বর্তমান সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে বাদ দিয়ে সম্মেলন করবে বলে ঘোষনা দিলে আমি তার প্রতিবাদ করি।

এসময় এমপির সাথে থাকা কিছু নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে উঠে। তখন উভয় পক্ষের মধ্যে ধাকা-ধাকি ঘটনা কিছুটা ঘটেছে। এই বিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা এম এ মালেক ও উপজেলা আওয়ামী-লীগের সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সাখু ফোনে বারবার চেষ্টা করে পরও ফোন রিসিভ করেনি। এই বিষয়ে সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমদ সাংবাদিকদের সাথে কথা না বলে সভা থেকে বের হয়ে যান। এই বিষয়ে ধামরাই থানার ওসি তদন্ত ওহেদ পারভেজ বলেন,উভয় পক্ষের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়েছিল পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত ©২০২১ দৈনিক সানরাইজ বাংলা
Theme Customized BY Theme Park BD